img

Follow us on

Wednesday, Jun 19, 2024

Chandrayaan 3: চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সূর্যোদয়! বিক্রম, প্রজ্ঞানকে কবে জাগানোর চেষ্টা করবে ইসরো?

ISRO: ভোরের আলো ফুটল শিবশক্তি পয়েন্টে, এবার ঘুম কি ভাঙবে ‘বিক্রমে’র? গুটি গুটি পায়ে কি ফের চলতে শুরু করবে প্রজ্ঞান?

img

চন্দ্রপৃষ্ঠে সূর্যোদয়! ঘুম ভাঙবে কি বিক্রম-প্রজ্ঞানের।

  2023-09-21 10:14:52

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: 'ভোর হলো, দোর খোলো' বিক্রম! কাতর আর্জি ভারতবাসীর। কাজ শুরু করেছে ইসরোর বিজ্ঞানীরাও। চলছে চন্দ্রযান-৩-এর (Chandrayaan-3 Update) ল্যান্ডার বিক্রম এবং রোভার প্রজ্ঞানকে জাগিয়ে তোলার চেষ্টা। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সূর্য উঠে গিয়েছে বুধবার। সূর্যের ক্ষীণ আলো এসে পড়েছে শিবশক্তি পয়েন্টেও। তবে সঙ্গে সঙ্গে বিক্রম বা প্রজ্ঞান কাউকেই জাগানো সম্ভব নয়। গত ১৫ দিন ধরে যে শীতল আবহাওয়ায় যন্ত্রগুলি অকেজো হয়ে পড়েছিল, তা কাটিয়ে ওঠার জন্য কিছুটা তাপের প্রয়োজন। এখনই সূর্য থেকে সেই তাপ মিলবে না। ইসরো জানিয়েছে, সূর্যালোকে বিক্রম এবং প্রজ্ঞানের ব্যাটারি রিচার্জ হবে। তার জন্যই অপেক্ষা করে আছেন ইসরোর আধিকারিকেরা। ব্যাটারি রিচার্জ সম্পূর্ণ হলেই আবার ল্যান্ডার এবং রোভারকে সক্রিয় করে তোলা যাবে বলে আশাবাদী ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।

প্রাণ ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ

পৃথিবীতে যেমন ২৪ ঘণ্টায় একদিন হয়, এক চন্দ্রদিবস (Chandrayaan-3 Update) বলতে পৃথিবীর হিসেবে ১৪ দিনকে বোঝায়। পৃথিবীর হিসেবে ধরলে, ১৪ দিন চাঁদের উপর সূর্যের আলো পড়ে, তখন হয় দিন। তার পরের ১৪ দিন আবার ঘুটঘুটে অন্ধকার। তখন হয় রাত। পৃথিবীর হিসেবে ল্যান্ডার 'বিক্রম'(Lander Vikram) এবং রোভার 'প্রজ্ঞানে' (Rover Pragyan) চন্দ্রপৃষ্ঠে পা রাখার ১২ দিন পর চাঁদে রাত্রি নামে। গোড়াতে ১৪ দিনের মাথায় ঘুম পাড়ানোর কথা ছিল। কিন্তু সূর্যের অবস্থানের নিরিখে সময়ের আগে ঘুম পাড়ানো হয় তাদের। ইসরোর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, চাঁদের পিঠে সূর্যালোক পড়লেই শুক্রবার থেকে ইসরোর গ্রাউন্ড স্টেশনগুলি ল্যান্ডার ও রোভারের মডিউলগুলির এবং অন-বোর্ড যন্ত্রগুলিকে পুনরুজ্জীবিত করার চেষ্টা করবে। তবে প্রাণ ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। তবুও দমতে নারাজ বিজ্ঞানীরা। আশার আলোর নিভু নিভু হলেও একেবারে নিভে কিন্তু যায়নি। এমনটাও হতে পারে, হয়তো বা জেগেও উঠল ল্য়ান্ডার ও রোভার, তবে কর্মক্ষম রইল না।

আরও পড়ুন: আজ রাজ্যে আসছে প্রায় ৪ হাজার টন পদ্মার ইলিশ! বাজারে মিলবে কবে থেকে?

প্রত্যাশার থেকে বেশি কাজ করেছে চন্দ্রযান-৩

যদিও আশা করতে বাধা নেই। চন্দ্রযান-৩ (Chandrayaan-3 Update) প্রত্যাশার থেকে বেশি কাজ করেছে চাঁদের বুকে। মূল পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর ইসরো সিদ্ধান্ত নেয় ল্যান্ডার ও রোভারের আয়ু বাড়ানো যেতে পারে। তাই চাঁদের বুকে সমস্ত যন্ত্রের ক্রিয়াকলাপ বন্ধ করে দেয় এবং সেগুলিকে স্লিপ মোডে রেখে দেয়। স্লিপ মোডের আগে ব্যাটারিগুলি ফুল চার্জ অবস্থায় ছিল। যেহেতু চার্জড আপ অবস্থাতেই স্লিপ মোডে পাঠানো হয়েছে চন্দ্রযান-৩-কে, তাই রাতের কঠিন ঠান্ডাতেও নিজেদের কিছুটা হলেও গরম রাখতে পারবে যন্ত্রগুলি, এমনটাই আশা করছেন বিজ্ঞানীরা। যদি কোনও ভাবে জেগে উঠতে পারে চন্দ্রযান-৩ তবে ল্যান্ডার এবং রোভার কমপক্ষে আরও ১৪ দিনের জন্য (পৃথিবীর হিসেবে) চাঁদের বুকে একই ভাবে কাজ চালিয়ে যেতে পারবে। ফের গুটি গুটি পায়ে চাঁদের বুকে হেঁটে বেড়াচ্ছে প্রজ্ঞান, স্বপ্ন সকল ভারতবাসীর।

দেশের খবরদশের খবরসব খবরসবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

ISRO

bangla news

Chandrayaan-3

Moon Mission

Lander Vikram

pragyan rover


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর