img

Follow us on

Friday, Jul 19, 2024

Google Doodle: শতবর্ষ পূর্তিতে গুগলের শ্রদ্ধা ব্রাজিলিয়ান পদার্থবিদকে, চেনেন সিজার লেটেসকে?

Cesar Lattes: সিজার লেটেসকে শ্রদ্ধা গুগলের, চিনে নিন এই বিশ্বশ্রুত বিজ্ঞানীকে...

img

প্রতীকী ছবি।

  2024-07-11 09:40:15

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: বিশেষ বিশেষ দিনে বিশেষ বিশেষ মানুষ কিংবা কোনও একটি নির্দিষ্ট তারিখের বিশেষত্ব বোঝাতে ছবি বদলে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে গুগল (Google Doodle)। আজ, ১১ জুলাই। গুগল উদযাপন করছে ব্রাজিলিয়ান পদার্থবিদ তথা শিক্ষক সিজার লেটসের (Cesar Lattes) শততম জন্মদিন। এই সিজারই আবিষ্কার করেছিলেন পিয়ন বা পি মিসন-এর।

গুগল ডুডুলের শ্রদ্ধা (Google Doodle)

পিয়ন হল একটি সাব অ্যাটমিক উপাদান, ইলেকট্রনের চেয়ে যার ভর ২৭০ গুণ বেশি। এই গবেষককেই এদিন শ্রদ্ধা জানাচ্ছে গুগল ডুডুল। ১৯২৪ সালের এই দিনেই জন্মেছিলেন এই বিশ্বশ্রুত গবেষক। তাঁর আবিষ্কৃত পিয়ন অনায়াস করেছিল অ্যাডভান্সড নিউক্লিয়ার শক্তিগুলোকে বুঝতে। সিজার লেটেস-এর আবিষ্কার সম্পর্কে বলতে গিয়ে গুগল ডুডুল বলেছে, “হ্যাপি বার্থডে সিজার লেটেস। লাতিন আমেরিকা এবং বিশ্বকে এক্সপেরিমেন্টাল ফিজিক্সের পথ দেখানোয় তোমায় ধন্যবাদ।” লেটেসের গল্পটি সেই সময়কার, যখন এক গবেষক পাহাড়ের চূড়ায় দুটি ফটোগ্রাফিক প্লেট নিয়ে এসেছিলেন। আরও বেশি করে মহাজাগতিক রশ্মি পেতে এটা করা হয়েছিল।

পিয়ন কী?

টেক জায়েন্টের মতে, ‘লেটেস যে প্লেট মডিফায়েড করেছিলেন, সেটা একটি উপাদানের ট্র্যাকগুলোকে দেখায়, যেটা আগে কখনও দেখা গিয়েছিল না। এটাই হল পিয়ন। পিয়নগুলিকে পি মিজনসও বলে। এগুলি অ্যাটমের থেকেও ক্ষুদ্রতর। যখন কোনও স্পেস ম্যাটার পৃথিবীর অ্যাটমসস্ফিয়ারে ভেঙে পড়ে, তখনই জন্ম হয় পিয়নের।” গুগল ডুডল (Google Doodle) বলে, “লেটেস ঠিকই সন্দেহ করেছিলেন যে ফটোগ্রাফিক প্লেটে যদি বোরন যোগ করা হয়, তখন বিভিন্ন উপাদানকে ভেঙে স্পষ্টতর ছবি দেখা যায়। এটা এত ভালো কাজ করেছিল যে, তিনি প্রতিটি প্রোটনকেও দেখতে পেয়েছিলেন।” লেটেস কেবল পি মিজনসের অস্তিত্বই আবিষ্কার করেননি, তিনি এ-ও দেখেছিলেন যে এমন কিছু মিজনস রয়েছে, যেগুলো অন্যদের থেকেও বেশি ভারী। তাঁর গবেষণার পুরস্কারও পেয়েছিলেন লেটেস।

আর পড়ুন: “ভারত বিশ্বকে বুদ্ধ দিয়েছে, যুদ্ধ নয়”, অস্ট্রিয়ায় বললেন প্রধানমন্ত্রী

পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। এরই কিছুদিন পরে সাও পাওলো বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিদ্যার অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন তিনি। পরে যোগ দেন ক্যাম্পিনাস স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে। বিজ্ঞানে গবেষণার জন্য সরকারকে বেশি করে ফান্ডিং করতে বলেন লেটেস (Cesar Lattes)। যার ফলশ্রুতিতে গড়ে ওঠে, সিবিপিএফ - ব্রাজিলিয়ান সেন্টার ফর রিসার্চ ইন ফিজিক্স। এখানকার সায়েন্টিস্ট ডিরেক্টরও ছিলেন লেটেস (Google Doodle)।

 

দেশের খবর, দশের খবর, সব খবর, সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের  Whatsapp, FacebookTwitter, Telegram এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

Google

bangla news

Bengali news

Science News

Google Doodle

Tech News

news in bengali

Doodle

100th birth anniversary

cesar lattes

pion


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর