img

Follow us on

Tuesday, Jul 16, 2024

GenAI: জেনএআই ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে সিংহভাগ ভারতীয় সংস্থা! কী এটা?

Indian Firms Plan: জেনএআই ব্যবহার করতে চাইছে ৭৩ শতাংশ ভারতীয় সংস্থা, বলছে রিপোর্ট, কেন জানেন?

img

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। প্রতীকী ছবি।

  2024-07-09 11:08:00

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: এবার জেনারেটিভ এআই (GenAI)-এর ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে সিংহভাগ ভারতীয় সংস্থা (Indian Firms Plan)। সোমবার প্রকাশিত এক রিপোর্টেই জানা গিয়েছে এই তথ্য। জানা গিয়েছে, নিরাপত্তা বাড়াতে এবং আইটি অবজেকটিভগুলিকে বৃহত্তর ব্যবসায়িক লক্ষ্যগুলির সঙ্গে সম্পৃক্ত করতে প্রায় ৭৩ শতাংশ ভারতীয় সংস্থা চাইছে জেনারেটিভ এআই ব্যবহার করতে। আগামী এক বছরের মধ্যেই এই পরিকল্পনা কার্যকর করা হতে পারে বলেও খবর।

জেনারেটিভ এআই (জেনএআই) ঠিক কী?

আগে, জেনে নেওয়া যাক, ঠিক কী এই জেনারেটিভ এআই (GenAI)। সোজা কথায়, এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে যে পাঠ্য, চিত্র, অডিও এবং সিন্থেটিক ডেটা তৈরি করা হয়, সেগুলিই হল জেনারেটিভ এআই ( সংক্ষিপ্ত- জেনএআই)। অর্থাৎ, এআই-কে কাজে লাগিয়ে যা জেনারেট করা হচ্ছে (তৈরি করা হচ্ছে) তাই জেনারেটিভ এআই। এর সাহায্যে, নিমেষের মধ্যে ব্যবহারকারীর চাহিদা বা দাবি অনুযায়ী, উচ্চ-মানের পাঠ্য, গ্রাফিক্স এবং ভিডিও তৈরি হয়। এর সবচেয়ে দুই প্রকৃষ্ট উদাহরণ হল চ্যাটজিপিটি ও মেটাএআই। 

কী বলছে রিপোর্ট? (GenAI)

এক্সপোজার ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি টেনেবলের মতে, মাত্র ৮ শতাংশ প্রতিষ্ঠান জেনারেটিভ এআই প্রযুক্তি প্রয়োগে আস্থা দেখিয়েছে খুব বেশি পরিমাণে। টেনেবল এপিজের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট নাইজেল এনজি বলেন, “এআইয়ের দ্রুত উত্থান সত্ত্বেও, অনেক ভারতীয় ব্যবসায়ী এখনও তাঁদের প্রযুক্তিকে উন্নত করে চলেছেন। তবে তাঁদের প্রায়ই রিসোর্স বা দক্ষতার অভাবের সম্মুখীন হতে হয়। দক্ষতা তৈরি, প্রশিক্ষণ দেওয়া এবং এআই ইমপ্লিমেন্টের অভাবও অনুভব করেন তাঁরা। এর পাশাপাশি তাঁরা উচ্চ মাত্রার ডেটা গভর্ন্যান্সও মেনটেন করেন।”

সমীক্ষায় ধরা পড়েছে দুই চ্যালেঞ্জ 

২০২৩ সালের অক্টোবর মাসে ৮২৬ জন আইটি এবং সাইবার সিকিউরিটি প্রফেশনালের ওপর ((GenAI)) সমীক্ষা করেন সমীক্ষকরা। এর মধ্যে ৫২ জন ভারতীয়ও ছিলেন। ভারতীয় সংস্থাগুলিতে লুক্কায়িত দু’টি প্রধান চ্যালেঞ্জ চিহ্নিত করতে পেরেছেন সমীক্ষকরা। এই দুটি চ্যালেঞ্জ হল ইউটিলাইজিং বা অপটিমাইজিং এআই টেকনোলজি এবং এআইয়ের কার্যকারিতা নিয়ে অনিশ্চয়তা। প্রথমটির সমস্যা রয়েছে ৭১ শতাংশ ভারতীয় সংস্থার। আর দ্বিতীয়টি ৫৪ শতাংশ ভারতীয় সংস্থার সমস্যা।

আর পড়ুন: দৃশ্যমাধ্যমে অমর্যাদা করা যাবে না বিশেষভাবে সক্ষমদের, ‘সুপ্রিম’ নির্দেশ

এই রিপোর্টেই যে উদ্বেগের বিষয়টি নিয়ে আলোকপাত করা হয়েছে, সেটি হল জেনারেটিভ এআই ক্রমেই হয়ে উঠছে বৃহত্তর সিকিউরিটি থ্রেট। ভারতীয় সংস্থাগুলির মধ্যে ৪০ শতাংশের মধ্যে কাজ করছে এই ভীতি। এনজি বলেন, “ভবিষ্যতে জেনারেটিভ এআইয়ের বিবর্তনীয় ক্ষমতা ব্যবহার করা হতে পারে সাইবার সিকিউরিটি পদ্ধতিগুলিতে। এই যে একটা পথ থেকে অন্য পথে শিফ্ট হবে, তাতে একাঙ্গীভূত হয়ে যাবে আইটি এবং সাইবার সিকিউরিটি। এআই গভর্ন্যান্সকে অগ্রাধিকার দেওয়া এবং প্রযুক্তিকে দায়িত্বের সঙ্গে (Indian Firms Plan) ব্যবহার করার ওপরও গুরুত্ব দেবে জেনারেটিভ এআই (GenAI)।

 

দেশের খবর, দশের খবর, সব খবর, সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের  Whatsapp, FacebookTwitter, Telegram এবং Google News পেজ।

 

Tags:

Madhyom

bangla news

Bengali news

news in bengali

ai

indian firms

GenA

 security measures

Indian Firms Plan


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর