img

Follow us on

Tuesday, Apr 23, 2024

Recruitment Scam: নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে সিআইডি-র চোখে 'ফেরার' শিক্ষাকর্তা কীভাবে সই করছেন কলেজের নোটিসে?

নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে স্ত্রী জেলে, অভিযুক্ত শিক্ষাকর্তার খোঁজ নেই

img

নোটিস বোর্ডে স্বাক্ষর (বাঁদিকে), ধৃত শিক্ষিকা জেসমিন খাতুন (ডানদিকে) (সংগৃহীত ছবি)

  2024-03-04 19:10:31

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডের (Recruitment Scam) নায়ক স্কুল সার্ভিস কমিশনের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের প্রাক্তন চেয়ারম্যান শেখ সিরাজুদ্দিন কেন এখনও অধরা। তাঁর স্ত্রী শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে গ্রেফতার হওয়া শিক্ষিকা জেসমিন খাতুনকে ফের বাঁকুড়া জেলা আদালতে পেশ করা হল। ওই কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত শিক্ষাকর্তা অলোক কুমার সরকারকেও এদিন আদালতে পেশ করা হয়। তবে, শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডের নায়ক শেখ সিরাজুদ্দিন গ্রেফতার না হওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

সিআইডি খাতায় ফেরার, কলেজের নোটিস বোর্ডে জ্বলজ্বল করছে সই (Recruitment Scam)

স্কুল সার্ভিস কমিশনের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চল জোনের চেয়ারম্যান হওয়ার সুবাদে নিজের প্রভাব খাটিয়ে স্ত্রী জেসমিন খাতুনকে শিক্ষিকা হিসাবে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে শেখ সিরাজুদ্দিনের বিরুদ্ধে। অভিযোগ উঠতেই ঘটনার তদন্ত শুরু করে সিআইডি। তদন্ত চলাকালীন গত ২১ ফেব্রুয়ারি সিআইডি গ্রেফতার করে শেখ সিরাজুদ্দিনের স্ত্রী তথা বাঁকুড়ার ইন্দপুর ব্লকের ভতড়া শ্রীদুর্গা বিদ্যায়তন হাইস্কুলের সংস্কৃত বিষয়ের শিক্ষিকা জেসমিন খাতুনকে। ২২ ফেব্রুয়ারি তাঁকে সিআইডি আদালতে হাজির করলে ৪ মার্চ ফের তাঁকে আদালতে পেশের নির্দেশ দেয় আদালত। সেই নির্দেশ মেনে সোমবার জেসমিন খাতুন ও ওই নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে (Recruitment Scam) যুক্ত প্রাক্তন শিক্ষা কর্তা অলোককুমার সরকার ও শান্তিপ্রসাদ সিনহাকে বাঁকুড়া জেলা আদালতে পেশ করে সিআইডি। এদিকে এখনও পর্যন্ত এই কাণ্ডের মূল মাথা শেখ সিরাজুদ্দিন ফেরার। সিআইডির দাবি, তাঁকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। শেখ সিরাজুদ্দিনকে যেখানে সিআইডি-র চোখে ফেরার, অথচ শালডিহা কলেজের নোটিস বোর্ডে তাঁর স্বাক্ষর জ্বলজ্বল করছে। নোটিস বোর্ডে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সিরাজুদ্দিন কলেজের অধ্যক্ষ হিসাবে কলেজেরই এক অধ্যাপককে লিখিতভাবে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দিচ্ছেন।

স্থানীয় বাসিন্দাদের কী বক্তব্য?

সরকারি আইনজীবী বলেন, শেখ সিরাজউদ্দিন কেন অধরা তা বলতে পারবে সিআইডি। তবে, তার আগাম জামিন খারিজ করেছে আদালত। অন্যদিকে,কলেজের অধ্যক্ষ হিসাবে যে শেখ সিরাজুদ্দিন স্বাক্ষর করছেন তাঁকে কেন খুঁজে পাচ্ছে না সিআইডি, সেই প্রশ্ন তুলছেন এলাকার মানুষ। স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, হয়তো তাঁকে আড়াল করার চেষ্টা করা হচ্ছে। স্বামী শেখ সিরাজুদ্দিন কোথায় সে ব্যাপারে বারবার প্রশ্ন করা হলেও, এদিন কোনও কথা বলেননি ধৃত শিক্ষিকা জেসমিন খাতুন।

 

দেশের খবরদশের খবরসব খবরসবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

West Bengal

bangla news

Bengali news

Bankura

court

Recruitment scam


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর