img

Follow us on

Saturday, May 18, 2024

Recruitment Scam: প্রাথমিকে চাকরি হারিয়েও মিলেছে পুনর্বহালের নির্দেশ, নিয়োগ না পেয়ে বিক্ষোভ

নিয়োগের দাবিতে ডিপিএসসি-র সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ

img

পুনরায় নিয়োগ না পেয়ে অবস্থান-বিক্ষোভ। নিজস্ব চিত্র

  2023-05-31 15:13:22

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: পুনর্নিয়োগের দাবিতে রায়গঞ্জে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের অফিসের সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ। চাকরি হারিয়ে পুনর্বহালের নির্দেশ পাওয়া শিক্ষকরাই এভাবে আন্দোলনে নেমেছেন। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে নিয়োগ-দুর্নীতি (Recruitment Scam) মামলায় প্রাথমিকে চাকরিহারা ২৬৯ জনকে পুনরায় বহালের নির্দেশ দিয়েছে বোর্ড। অন্যান্য জেলাতে বোর্ডের নির্দেশে শিক্ষকরা চাকরিতে যোগ দিলেও শুধুমাত্র উত্তর দিনাজপুরেই প্রশাসন তাদের পুনরায় নিয়োগ করছে না বলে অভিযোগ। প্রশাসনের দুয়ারে ঘুরেও কোনও সুরাহা না মেলায় সোমবার রাত থেকে অবস্থান-বিক্ষোভে বসে পড়েন তাঁরা। অবিলম্বে পুনরায় নিয়োগ না করা হলে এই বিক্ষোভ চলবে বলেই আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন।

নিয়োগ না হলে অবস্থানে অনড়

নিয়োগ-দুর্নীতি (Recruitment Scam) মামলা শুরু হতেই রাজ্যে প্রথম দফায় ২৬৯ জনকে চাকরি থেকে বরখাস্তের নির্দেশ দেয় কলকাতার উচ্চ আদালত। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে চাকরিহারারা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন। এরপর সুপ্রিম কোর্ট তাঁদের চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ দেয় বলে দাবি। আর সেই মোতাবেক প্রাথমিক শিক্ষা বোর্ড প্রত্যেক জেলায় ডিপিএসসি ও প্রশাসনকে তাঁদের পুনরায় নিয়োগ করার নির্দেশ দিয়ে চিঠি দেয়। তার ভিত্তিতে রাজ্যের অন্যান্য জেলায় চাকরিতে ওই শিক্ষকদের পুনর্বহাল করা হলেও উত্তর দিনাজপুরের প্রায় ৩৭ জনকে নিয়োগে প্রশাসন টালবাহানা করছে বলে অভিযোগ। আর বেশ কয়েকদিন ধরে প্রশাসনের দুয়ারে গিয়েও নিয়োগ না পেয়ে অবশেষে তাঁরা এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হন। খবর পেয়ে অনেক রাতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় কর্নজোড়া ফাড়ির পুলিশ। আন্দোলনকারীদের বোঝানোর চেষ্টা করলেও তাঁদের আশ্বস্ত করতে পারেনি প্রশাসন। এদিকে মঙ্গলবার সকালেও তাঁরা একইভাবে ডিপিএসসি-র সামনে অবস্থানে বসে থাকেন।

কী বলছেন বিক্ষোভকারীরা (Recruitment Scam)?

বিক্ষোভকারী মানালি চক্রবর্তী বলেন, রাতে আমরা মেয়েরা ১১ টার পর চলে গিয়েছিলাম। তারপর ছেলেরা ছিল। আমরা আমাদের ন্যায্য যে দাবি, সেটা কিছুতেই পাচ্ছি না। তার জন্যই এখানে বসে আছি। যতক্ষণ না নিয়োগের আশ্বাস দিচ্ছে, ততক্ষণ আমরা বসে থাকবো। সবাই নিজের সংসার ফেলেই এখানে বসে আছি। কাল রাতে শাশুড়ি পড়ে গেছে, তবুও যেতে পারিনি। ফোন আসছে বারবার। না উঠতে পারছি, না যেতে পারছি। আমাদের অধিকার বুঝে না পাওয়া পর্যন্ত আমরা যাবো না।

কী বললেন মহকুমা শাসক (Recruitment Scam)?

যদিও এই বিষয়ে রায়গঞ্জের মহকুমা শাসক কিংশুক মাইতি জানিয়েছেন, বিষয়টি (Recruitment Scam) আলোচনার মধ্যে আছে। খুব তাড়াতাড়ি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে বলেই তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে পুরো বিষয়টি জানিয়েছি। ওদের যে অভাব-অভিযোগ রয়েছে, তা তাড়াতাড়িই মিটে যাবে। তবে যেভাবে অফিস চত্বরে তাঁরা অবস্থান করছেন, তা করতে বারণ করা হয়েছে। কারণ ওখানে ১৪৪ ধারা রয়েছে। সেখানে জমায়েত করাটা আইনসঙ্গত নয়। যদি কিছু দাবিদাওয়া থাকে, তা অফিস টাইমে এসে তাঁরা জানাতেই পারেন। কিন্তু অফিস শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও বসে থাকলে তা চলতে দেওয়া যাবে না। আশা করি, এটা তাঁরা বুঝেছেন।  

 

দেশের খবর, দশের খবর, সব খবর, সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

bangla news

Bengali news

Employment

Recruitment scam

sit-in-demonstration

dpsc


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর