img

Follow us on

Thursday, Jun 20, 2024

Barrackpore: টাকা ডবল করে দেওয়ার টোপ! প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ঢেলে প্রতারিত ওড়িশার এক ব্যক্তি

টাকা ডবলের নেশায় খোয়া গেল প্রায় ১০ লাখ!

img

ধৃত প্রতারণাচক্রের তিন সদস্য (নিজস্ব চিত্র)

  2023-09-19 17:55:32

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: এক নিমেষে টাকা ডবলের টোপ দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণা করার অভিযোগ উঠল এক চক্রের বিরুদ্ধে। ওড়িশার ভদ্রকের শ্রীকান্ত মিশ্র নামে এক ব্যক্তি প্রায় ১০ লক্ষ টাকা প্রতারিত হয়েছেন। ইতিমধ্যেই তিনি বারাকপুর (Barrackpore) পুলিশ কমিশনারেটের ঘোলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত নেমে পুলিশ এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। উদ্ধার হয়েছে বেশ কিছু নগদ টাকা।

ঠিক কী ঘটনা ঘটেছে? (Barrackpore)

হুগলি, উত্তর ২৪ পরগনা এবং নদিয়া জেলাজুড়ে একটি প্রতারণাচক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। অভিনব কৌশলে তারা বিভিন্ন মানুষকে প্রতারণা করছে বলে অভিযোগ। শুধু এই রাজ্যের বাসিন্দারা তাদের কাছে টাকা জমা দিয়ে প্রতারিত হয়েছেন তা নয়, ভিন রাজ্যেও তারা প্রতারণা চক্র চালাচ্ছে। ভিন রাজ্যে তাদের লিঙ্কম্যানও রয়েছে। এরকম এক প্রতারণার চক্রের শিকার হয়েছেন ওড়িশার ভদ্রকের শ্রীকান্তবাবুও। এই প্রতারণাচক্রের খপ্পরে পড়ে তিনি প্রায় সাড়ে ন'লক্ষ টাকা প্রতারিত হয়েছেন। জানা গিয়েছে, শ্রীকান্তবাবু একটি সূত্র থেকে জানতে পারেন কলকাতায় একটি সংস্থার কাছে ডিজিটাল মাধ্যমে যে কোনও অঙ্কের টাকা জমা দিলেই সঙ্গে সঙ্গে নগদে তার দ্বিগুণ টাকা তারা ফেরত দিয়ে দেয়। প্রতারণাচক্রের লিংকম্যানই ভদ্রকের ওই ব্যক্তিকে টোপ দেয় বলে অভিযোগ। টাকা ডবলের আশায় শ্রীকান্তবাবু কলকাতায় আসেন। প্রতারকদের সঙ্গে দেখাও হয়। এরপর কলকাতা থেকে গাড়ি করে তাঁরা কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ে ধরে ঘোলার মুড়াগাছায় আসেন। সেখানেই প্রতারকরা নানাভাবে বুঝিয়ে আস্থা অর্জন করে শ্রীকান্তের। এরপরই অনলাইনে তিনি সাড়ে ন' লক্ষ টাকা প্রতারকদের অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে দেন। প্রতারকদের সঙ্গে একই গাড়িতে ছিলেন শ্রীকান্তবাবু। টাকা ট্রান্সফার হওয়ার পর প্রতারকরা জানায়, গাড়ির ডিকিতে রাখা রয়েছে তাঁর প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা। গাড়ি থেকে নেমে শ্রীকান্তবাবু গা়ড়ির ডিকি খুলে সেই ডবল টাকা আনতে চান। ডিকি খুলতে যাওয়ার আগেই প্রতারকরা গাড়ি নিয়ে উধাও হয়ে যায়। তখনই শ্রীকান্তবাবু প্রতারিত হওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারেন। এরপরই তিনি বারাকপুর (Barrackpore) ঘোলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

পুলিশ-প্রশাসনের কী বক্তব্য?

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় তিনজন গ্রেফতার হয়েছে। তাদের মধ্যে দুজন দেবজ্যোতি বিশ্বাস এবং সম্রাট বরাইয়ের বাড়ি কল্যাণী। এই দুজনকে আগেই পুলিশ গ্রেফতার করেছে। পরে, পাপ্পু কুমার যাদবের নাম জানতে পারে। তার বাড়ি বিহারে। সে কল্যাণীতে থাকে। হুগলির মগরা থেকে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। কল্যাণীর বাড়ি থেকে সাড়ে আট লক্ষ টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। বারাকপুর (Barrackpore) পুলিশ কমিশনারেটের এক আধিকারিক বলেন, এই প্রতারণা চক্রের সঙ্গে আর কারা রয়েছে তা জানার চেষ্টা চলছে। আর আরও এক লক্ষ টাকা কোথায় রয়েছে তার খোঁজে তল্লাশি চলছে।

 

দেশের খবরদশের খবরসব খবরসবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

bangla news

Bengali news

Fraud

barrackpore


আরও খবর


ছবিতে খবর