img

Follow us on

Sunday, Apr 21, 2024

Dhaka Blast: ঢাকার গুলিস্তানে ভয়াবহ বিস্ফোরণ! মৃতের সংখ্যা ১৮, আহত শতাধিক

বিস্ফোরণের কারণ নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে।

img

বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে ভিড়।

  2023-03-08 10:13:49

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশে ঢাকার গুলিস্তানে ভয়াবহ বিস্ফোরণে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ১৮। আহত শতাধিক।  তাঁদের মধ্যে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন কয়েক জনের অবস্থা ‘গুরুতর’। ফলে মৃত্যুমিছিল দীর্ঘতর হওয়ার আশঙ্কা। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার নাজমুল হক জানিয়েছেন, আহতদের দেহে স্‌প্লিন্টারের ক্ষত রয়েছে। মঙ্গলবার বিকেল ৪টে ৫০ নাগাদ গুলিস্তানের সিদ্দিকিবাজার এলাকায় বিস্ফোরণ ঘটে।

ভয়াবহ বিস্ফোরণের জেরে আতঙ্ক

সিদ্দিকি বাজারের ভয়াবহ বিস্ফোরণের জেরে আতঙ্ক গোটা বাংলাদেশ জুড়ে। বুধবার সকাল থেকেও চলছে উদ্ধার কাজ। বিস্ফোরণস্থলে চাপা পড়া আর কারুর বেঁচে থাকার আশা নেই বললেই চলে। গোটা বাণিজ্যিক বিল্ডিং ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। ভেঙে পড়তে পারে বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত বিল্ডিংটি। এই আশঙ্কাতেই ঢাকার ওই বিল্ডিংয়ের বেসমেন্টে প্রবেশ করতে পারছে না দমকল বাহিনী। ভবনটির কলামগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ভিতরে ঢুকতে পারছে না দমকল। দমকল বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভবনটি একটু স্থিতিশীল না করতে পারলে ভিতরে প্রবেশ করাটা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যেতে পারে। সদা ব্যস্ত ঢাকার গুলিস্তানে এই ভয়াবহ ঘটনায় সবাই হতচকিত। গুলিস্তান হলো ঢাকার সবথেকে পুরোনো বাস স্ট্যান্ড। রাজধানীর মধ্যে ইন্টার সিটি এবং দূর পাল্লার বাস চলাচল করে এখান থেকে। এর জন্য এই এলাকায় প্রায় ২৪ ঘন্টাই হাজার হাজার লোকের ভিড় থাকে।

আরও পড়ুন: জিনপিংয়ের একান্ত ঘনিষ্ঠ লি কিয়াংই হচ্ছেন চিনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা বিস্ফোরণের ঘটনায় ক্ষতিপূরণের কথা ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। নিহতদের পরিবার পিছু ৫০ হাজার টাকা ও আহতদের ২৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পক্ষ থেকে স্বেচ্ছায় রক্তদানের জন্য হাসপাতালে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে। তবে বিস্ফোরণের কারণ নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে। জঙ্গি হামলার সম্ভাবনার পাশাপাশি উঁকি দিচ্ছে, সিদ্দিকি বাজারের ৭তলা বাড়িটির নীচের একটি দোকানে নিষিদ্ধ বিস্ফোরক মজুত রাখার সম্ভাবনাও। ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)-এর কমিশনার খোন্দকার গোলাম ফারুক মঙ্গলবার রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পরে সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, ‘‘সিদ্দিকবাজারের বিস্ফোরণ নাশকতা না কি দুর্ঘটনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’’ তবে প্রত্যক্ষ্যদর্শীদের অনেকেই দাবি করেছেন, একটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রক যন্ত্রেই এই বিস্ফোরণ ঘটেছে।

দেশের খবর, দশের খবর, সব খবর, সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Dhaka Blast

gulistan blast

bangladesh blast


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর