img

Follow us on

Monday, Mar 04, 2024

Gyanvapi Mosque: জ্ঞানবাপী মসজিদের ‘ব্যাস কা তেহখানা’য় মধ্যরাতে পুজো হিন্দু পক্ষের

আদালতের নির্দেশ মেনে পুজো শুরু ব্যাসজির, কবে দর্শন পাবেন ভক্তরা?...

img

জ্ঞানবাপী মসজিদ। প্রতীকী ছবি।

  2024-02-01 13:31:40

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: ৩১ বছর বাদে পুজো পেলেন ব্যাসজি। বুধবার মধ্যরাতে কড়া নিরাপত্তায় পুজো হল বারাণসীর জ্ঞানবাপী মসজিদের (Gyanvapi Mosque) ‘ব্যাস কা তেহখানা’য়। এদিন দুপুরেই পুজোর অনুমতি দিয়েছিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। তার পরেই পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের উপস্থিতিতে মধ্য রাতে হয় পুজো।

পুজো শুরু 

পুজো করেন কাশী বিশ্বনাথ মন্দির ট্রাস্টের সদস্য গণেশ্বর শাস্ত্রী দ্রাবিড়। হয় মঙ্গল আরতিও। পুজোর সময় উপস্থিত ছিলেন মন্দির কর্তৃপক্ষের প্রাক্তন ও বর্তমান কর্তারা। বারাণসীর জেলাশাসক কৌশল রাজ শর্মাও উপস্থিত ছিলেন। পুজোর আগে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয় পুজোস্থল। সরানো হয় ব্যারিকেড। তার পরেই নিয়ম মেনে হয় পুজো। পুজোর আগে রাত ১২টা নাগাদ বৈঠকে বসেন বারাণসীর জেলাশাসক ও পুলিশ কমিশনার। চলে ঘণ্টা দুয়েক ধরে। কাশী বিশ্বনাথ ধামের একটা হলে হয় এই বৈঠক। তার পরেই হয় মঙ্গল আরতি, পুজোপাঠ।

‘ব্যাস কা তেহখানা’য় প্রবেশ

রাত ১টা নাগাদ মসজিদের নীচে ‘ব্যাস কা তেহখানা’য় প্রবেশ (Gyanvapi Mosque) করেন হিন্দু পক্ষের মামলাকারীরা। উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক, পুলিশ কমিশনার, কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের পুজারি সহ মোট পাঁচজন। ওম প্রকাশ মিশ্র নামক এক পুরোহিতকে কাশী বিশ্বনাথ মন্দির ট্রাস্টের তরফে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে গর্ভগৃহে পুজোর। পুজোর পর তেহখানা থেকে বেরিয়ে হিন্দু পক্ষের মামলাকারী সোহন লাল আর্য ও লক্ষ্মী দেবী বলেন, “আমরা তেহখানায় অবস্থিত ব্যাসজির দর্শন করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু পুলিশ সেই অনুমতি দেয়নি। আশা করছি, শীঘ্রই সাধারণ হিন্দু ভক্তদেরও পুজোর অনুমতি দেওয়া হবে।”

আরও পড়ুুন: ‘‘১০ বছরেই নয়া উচ্চতায় দেশের অর্থনীতি’’, বাজেট বক্তৃতায় বললেন নির্মলা

প্রসঙ্গত, বুধবারই জ্ঞানবাপী মসজিদের (Gyanvapi Mosque) অন্দরে সিল করা বেসমেন্ট চত্বরে হিন্দুদের পুজো করার অনুমতি দিয়েছিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। তার পরেই হিন্দু পক্ষের আইনজীবী বিষ্ণু শঙ্কর জৈন বলেছিলেন, “আগামী সাত দিনের মধ্যে জ্ঞানবাপী মসজিদের বেসমেন্টে পুজো শুরু হবে। সব হিন্দুরাই সেখানে পুজোর অনুমতি পাবেন।” হিন্দুরা যাতে নির্বিঘ্নে এই চত্বরে পুজো করতে পারেন, সেজন্য স্থানীয় প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় বন্দোবস্ত করার নির্দেশও দিয়েছিল আদালত। শ্রী কাশী বিশ্বনাথ মন্দির ট্রাস্টকে জ্ঞানবাপী মসজিদের ওই অংশে পুজোর জন্য একজন পূজারির নামও সুপারিশ করতে বলা হয়েছিল। ব্যারিকেড সরানো থেকে পুজোর স্থান পরিষ্কার সহ যাবতীয় ব্যবস্থা করতেও বলা হয়েছিল প্রশাসনকে। সেসব করেই এদিন হয়েছে পুজো।

 

দেশের খবরদশের খবরসব খবরসবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

national news

mosque

bangla news

Gyanvapi mosque

gyanvapi

news in bengali

puja rituals


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর