img

Follow us on

Saturday, Apr 20, 2024

Pinarayi Vijayan: আর্থিক অনিয়মের মামলা দায়ের কেরলের  সিপিএমের মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ের বিরুদ্ধে

কেরলের  সিপিএমের মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ইডির...

img

পিনারাই বিজয়ন ও তাঁর মেয়ে বীণা।

  2024-03-27 20:09:20

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: এবার আর্থিক অনিয়মের মামলা দায়ের হল কেরলের মুখ্যমন্ত্রী তথা সিপিএমের পলিটব্যুরোর সদস্য পিনারাই বিজয়নের (Pinarayi Vijayan) মেয়ে বীণার বিরুদ্ধে। বীণার একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা রয়েছে। অভিযোগ, দুটি সংস্থা থেকে বীণার তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় বেআইনি অর্থ ট্রান্সফার হয়েছিল। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই মামলা দায়ের করল ইডি।

বীণার বিরুদ্ধে অভিযোগ (Pinarayi Vijayan)

বীণার স্বামী মহম্মদ রিয়াজ কেরলের পর্যটনমন্ত্রী। রিয়াজের স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, কোচির দুই সংস্থা কোচি মিনারেলস ও রুটাইল লিমিটেড বীণার সংস্থায় ১.২১ কোটি টাকা দিয়েছিল। এই দুই সংস্থায়ই সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টের কাজ করে বীণার আইটি সংস্থা। তাই বীণার সংস্থায় (Pinarayi Vijayan) এই বিপুল পরিমাণ টাকা দেওয়ার বিষয়টি বেআইনি লেনদেন বলে প্রকাশ্যে আসে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম মারফত। জানুয়ারিতে অভিযোগের সত্যতা খতিয়ে দেখতে তদন্তের নির্দেশ দেয় কেন্দ্রের কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রক।

কর্নাটক হাইকোর্টে অভিযোগ দায়ের 

কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রকের অধীনস্থ সংস্থা সিরিয়াস ফ্রড ইনভেস্টিগেশন অফিসও বীণার সংস্থার বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দেয়। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে কর্নাটক হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় এক্সালজিক সলিউশনস প্রাইভেট লিমিটেড নামের একটি সংস্থা। এই সংস্থার পিটিশন খারিজ করে দেয় কর্নাটক হাইকোর্ট। তার পরেই মামলা দায়ের হয় মার্চে। এ বিষয়ে বিজয়ন কিংবা সিপিএমের কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

কেবল বীণা নন, মামলা দায়ের হয়েছে তাঁর তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা ও আরও বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। বেসরকারি দু’টি সংস্থা অবৈধভাবে বীণার সংস্থায় অর্থ দিয়েছে বলে অভিযোগ। এর পরেই প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্টের অধীনে মামলা রুজু করে ইডি। এই মামলায় জড়িতদের শীঘ্রই ইডি তলব করতে পারে বলে ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের।

আরও পড়ুুন: কেজরিওয়ালের গ্রেফতারি নিয়ে মন্তব্য, আমেরিকাকে ‘সমঝে’ দিল ভারত

কেরলের পর্যটনমন্ত্রীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, কোচি মিনারেলস ও রুটাইল লিমিটেডে সফটওয়্যার ডেভেলেপমেন্টের কাজ করার কথা ছিল বীণা আইটি সংস্থার। ইডির দাবি, ওই দুই সংস্থা ও বীণার সংস্থার মধ্যে লেনদেন হয়েছিল ১.২১ কোটিরও বেশি টাকা। কিন্তু কোনও কাজই হয়নি। কাজের নামে বেআইনি অর্থ লেনদেন করা হয়েছিল বলেই অভিযোগ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার (Pinarayi Vijayan)।

 

দেশের খবর, দশের খবর, সব খবর, সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Facebook, Twitter এবং Google News পেজ।

Tags:

Madhyom

bangla news

ED

Bengali news

Pinarayi Vijayan

PMLA

cpm

news in bengali

ed files money laundering case

veena


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর