img

Follow us on

Monday, Feb 26, 2024

Acharya Krishnam: শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ, বহিষ্কৃত কংগ্রেসের আচার্য কৃষ্ণম

কংগ্রেস নেতা আচার্য কৃষ্ণমকে বহিষ্কার, কারণ কি জানেন?...

img

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও আচার্য কৃষ্ণম। ফাইল ছবি।

  2024-02-11 15:01:04

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে বহিষ্কার করা হল কংগ্রেসের আধ্যাত্মিক গুরু আচার্য প্রমোদ কৃষ্ণমকে (Acharya Krishnam)। ছ’ বছরের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে তাঁকে। বহিষ্কারের পর তিনি বলেন, “কোনওরকম আপোস করব না।” শনিবার রাতে এক্স হ্যান্ডেলে কৃষ্ণম লেখেন, “রাম এবং রাষ্ট্র। কোনও আপোস করব না।” রবিবার তিনি জানান, এদিন দুপুরে কল্কি ধামে তিনি খুলবেন মনের ঝাঁপি। রাজনৈতিক মহলের মতে, এদিন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগতে পারেন কৃষ্ণম। বিজেপিতে যোগ দিয়ে প্রার্থীও হতে পারেন পদ্ম চিহ্নে।

মোদি সকাশে কৃষ্ণম

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন কংগ্রেসের এই প্রবীণ নেতা (Acharya Krishnam)। রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, সেখানেই সম্ভবত বিজেপিতে যোগ দেওয়ার রাস্তা খুলে যায়। তার পরেই বিষোদ্গার করেন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। উনিশের লোকসভা নির্বাচনে হাত চিহ্ন নিয়ে কৃষ্ণম প্রার্থী হন লখনউ কেন্দ্রে। চোদ্দর লোকসভা নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। সেবার তাঁর কেন্দ্র ছিল উত্তরপ্রদেশেরই সম্ভল। দু বারই পরাজিত হন তিনি। গান্ধী পরিবারের ঘনিষ্ঠ ছিলেন তিনি। প্রিয়ঙ্কা গান্ধী যখন উত্তরপ্রদেশের ইনচার্জ ছিলেন, তখন তাঁকে সাংগঠনিক কাজে সাহায্য করতেন কৃষ্ণম।

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার পাশাপাশি কৃষ্ণম নানা সময় ভঙ্গ করেছেন দলীয় শৃঙ্খলা। উত্তরপ্রদেশের সম্ভালে কল্কিধামের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী যাতে উপস্থিত থাকেন, তাই তাঁকে আমন্ত্রণ জানাতে গিয়েছিলেন তিনি। দল বিরোধী কথাবার্তাও বলতে শোনা গিয়েছিল তাঁকে। তার জেরেই বহিষ্কার করা হয়েছে কংগ্রেসের এই প্রবীণ নেতাকে। ২২ জানুয়ারি উদ্বোধন হয় রাম মন্দিরের। এদিনই প্রাণপ্রতিষ্ঠা হয় বালক রামেরও। এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল সোনিয়া গান্ধী সহ কংগ্রেসের একাধিক নেতাকে। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দেননি কংগ্রেসের তরফে কেউ। এনিয়েও দলীয় নেতৃত্বকে আক্রমণ শানিয়েছিলেন কৃষ্ণম।  

আরও পড়ুুন: মোদি ম্যাজিকেই হবে বাজিমাত, ফের ইঙ্গিত মিলল সমীক্ষায়

কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক (সাংগঠনিক) কেসি বেণুগোপাল বলেন, “দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ এবং বারংবার দলবিরোধী মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। প্রমোদ কৃষ্ণমকে (Acharya Krishnam) ছ’ বছরের জন্য বহিষ্কারের যে প্রস্তাব উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেস পাঠিয়েছিল হাইকমান্ডকে, তার প্রেক্ষিতেই বহিষ্কার করা হয় তাঁকে।”

 

  দেশের খবরদশের খবরসব খবরসবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ। 

Tags:

bjp

congress

Madhyom

PM Modi

bangla news

Bengali news

news in bengali

Acharya Krishnam


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর