img

Follow us on

Wednesday, Jun 19, 2024

Anantnag Encounter: তেরঙায় মোড়া সন্তানদের নিথর দেহ, শোকে পাথর শহিদ জওয়ানদের পরিবার

Jammu Kashmir: কারও সন্তানের বয়স ২ বছর, কারও বা মাত্র ২ মাস... অনন্তনাগে শহিদদের পরিবারে এখন শুধুই হাহাকার

img

অনন্তনাগে শহিদ হওয়া তিন অফিসার (ছবি-সংগ্রহীত)

  2023-09-14 13:48:21

মাধ্যম নিউজ ডেস্ক: কেউ সকালেই ফোন করে কথা বলেছিলেন বাড়িতে। কারও বাড়িতে ফেরার কথা ছিল অক্টোবরেই। বদলে তাঁরা ফিরলেন তেরঙায় মোড়া শববাহী শকটে। কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সব হাসি মিলিয়ে গেল কান্নায়। অনন্তনাগে তিন বীর শহিদের বাড়িতে এখন শুধুই হাহাকার। শোকে পাথর গোটা পরিবার। 

বুধবার, জম্মু কাশ্মীরের অনন্তনাগে জঙ্গিদমন অভিযানে (Anantnag Encounter) নেমেছিল সেনা ও পুলিশের যৌথবাহিনী। গারোল এলাকায় সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে শহিদ হন সেনার কর্নেল মনপ্রীত সিং, মেজর আশিস ধোনচক এবং জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিএসপি হিমায়ুন মুজামিল ভাট। এদিন তিন শহিদের বাড়িতে ছিল শুধুই নিস্তব্ধতা। পরিবারের লোকজন কেউই বিশ্বাস করতে পারছেন না যে, তাঁদের প্রিয়জন আর বাড়ি ফিরবেন না।

‘‘ব্যস্ত আছি, পরে কথা বলব’’, সেই শেষ কথা!

১৯ রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের কমান্ডিং অফিসার ছিলেন শহিদ কর্নেল মনপ্রীত সিং। তাঁর বাড়ি পঞ্চকুলার ২৬ নম্বর সেক্টরে। সেনাবাহিনীর সঙ্গে মনপ্রীতের পরিবারের সম্পর্ক নতুন নয়। তাঁর ঠাকুরদা শীতল সিং, বাবা লক্ষ্মীর সিং (বর্তমানে প্রয়াত) ও কাকা রণজিৎ সিং সেনাবাহিনীতে কাজ করতেন৷ তাঁর স্ত্রী জগমিত গ্রেওয়াল হরিয়ানার একটি সরকারি স্কুলের শিক্ষিকা (Anantnag Encounter)। তার দুই সন্তান রয়েছে। এক ছেলের বয়স ৬ বছর আর মেয়ের বয়স দুই বছর। শহিদ কর্নেলের শ্যালক জানান, বুধবার ভোরবেলা শেষবার কথা হয়েছিল তাঁদের মধ্যে। সেই সময় মনপ্রীত জানিয়েছিল, এখন ব্যস্ত আছে, পরে কথা বলবে। সেটাই শেষ কথা..। 

অক্টোবরেই বাড়ি আসার কথা ছিল

হরিয়ানার পানিপথের বাসিন্দা ছিলেন শহিদ মেজর আশিস ধোনচক। বছর দুয়েক আগেই জম্মুতে বদলি হন আশিস। এ বছরই তিনি পেয়েছিলেন ‘সেনা মেডেল’ (Anantnag Encounter)। পরিবারে বাবা, মা, স্ত্রী এবং দু’বছরের সন্তান রয়েছে। মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর তাঁর কাকা জানান, দেড় মাস আগেই বাড়িতে এসেছিলেন আশিস। আবার অক্টোবরে আসার কথা ছিল বাড়ি বদল করার জন্য। কিন্তু, তার আগেই সব শেষ।

শহিদ ডিএসপির কন্যার বয়স ২ মাস

অন্য দিকে, জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিএসপি হুমায়ুন ভাটের পরিবারেও শুধু হাহাকার। ২০১৮ সালেই পুলিশে যোগ দেন হুমায়ুন। শহিদ পুলিশ অফিসারের বাবা গুলাম হাসান ভাট জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত ইন্সপেক্টর জেনারেল। মাত্র দুই মাস আগেই হুমায়ুনের কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করেছিল (Anantnag Encounter)।

দেশের খবরদশের খবরসব খবরসবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের FacebookTwitter এবং Google News পেজ।

Tags:

India news

Madhyom

national news

bangla news

Bengali news

defence news

Anantnag Encounter

jammu kashmir news

jammu army terrorists encounter

terrorists security forces encounter

army colonel major martyred

jk police dsp killed

anantnag encounter family reaction


আরও খবর


খবরের মুভি


ছবিতে খবর